বিবাহ ডট কম - বনানী শিকদার, পিডিএফ - বাংলা বই এর pdf ডাউনলোড-Bangla Digital Boi Pdf

Latest

Saturday, May 22, 2021

বিবাহ ডট কম - বনানী শিকদার, পিডিএফ


 বিবাহ ডট কম - বনানী শিকদার,বাংলা উপন্যাস পিডিএফ
ডিজিটাল বইয়ের নাম- 'বিবাহ ডট কম'
লেখক- বনানী শিকদার
বইয়ের ধরন- ভিন্ন ধরনের উপন্যাস
ফাইলের ধরন- পিডিএফ
এই বইতে মোট পৃষ্টা আছে- ১৯১
ডিজিটাল বইয়ের সাইজ- ১এমবি
প্রিন্ট খুব ভালো, জলছাপ মুক্ত

বিবাহ ডট কম - বনানী শিকদার

'বিবাহ ডট কম' উপন্যাসটি নামের দিক থেকে যেমন অভিনব চরিত্র বর্ণনাতেও তেমনই অভিনব। উপন্যাসের প্রধান চরিত্র রূপা এবং সন্দীপ। বেঙ্গলি ম্যাট্রিমোনিতে তাদের পরিচয়। রূপা একটি চব্বিশ বছরের মেয়ের মা। ডিভোর্সি। সন্দীপ তেইশ বছরের মেয়ের বাবা। সে ডিভোর্সের জন্য অপেক্ষা করছে। সন্দীপ সাউথ ইস্টার্ন রেলওয়েতে ই ডি পি ম্যানেজার। বছরখানেক মুম্বাই, ভুবনেশ্বর ঘুরে সে এখন কলকাতায় নতুন পোস্টে জয়েন করবে বলে ফিরে এসেছে। সন্দীপ রূপাকে বলে সে দিল্লি ‘আই আই টি’র স্টুডেন্ট ছিল। রূপা সন্দীপের কাছে তার বিনম্রতা দেখায় সে সন্দীপের মতো মেধাবী নয় বলে। সন্দীপ রূপাকে খুব স্মার্ট এবং একজন সুন্দরী মহিলা বলে এবং রূপার জ্ঞান ও বুদ্ধিমত্তার প্রশংসা করে। সে জানতে পারে যে রূপা একজন লেখিকা। লেখার সূত্রে আজকাল কলকাতায় বেশি সময় সে কাটায় কিন্তু তার স্থায়ী বাসস্থান অন্য শহরে। একটা সার্জারি হওয়ায় রূপা এখন সেখানে মেয়ে রিলির কাছেই আছে। সন্দীপের সঙ্গে দেখা করার জন্য দু'মাস সময় চায় সে।
ম্যাট্রিমোনি থেকে আসা অনেকের মধ্যে উল্লেখযোগ্য আরেকজন হল স্কুল ইনস্পেক্টর শৈবাল ঘোড়াই। লোকচোখে সম্মানীয় শৈবার ঘোড়াই রূপাকে বিয়ে করতে চান এবং তাতে রূপার অনাগ্রহ দেখে রূপার সঙ্গে অবিলম্বে দৈহিক সম্পর্ক স্থাপনের প্রস্তাব দেন। সন্দীপও তার কাছে রূপাকে সহজ করার নানা চেষ্টা করে। ভি ডি ও কল করে তাকে বিভিন্ন খোলামেলা পোশাকে দেখতে চায়, ফ্রক পরে দেখতে চায়। রূপা আপত্তি করলে জোর করে, বোঝায় শরীরের ঊর্ধ্বাংশ দেখা গেলে কি ক্ষতি আছে! ভালবাসার সুর মিশিয়ে এমনভাবে যুক্তি পেশ করে সন্দীপ যে রূপা সম্মোহিত হয়ে যায়, কিছুক্ষণের জন্য হলেও ভাবে সন্দীপ যা বলছে তাই-ই ঠিক। বনানী শিকদার এই উপন্যাসে জীবনের বিস্তর ঘাত-প্রতিঘাতের, উত্থান-পতনের মধ্যে যেসব চরিত্রের সৃষ্টি করেছেন তা আমাদের প্রাত্যহিক জীবন থেকে উঠে আসা। প্রত্যেক পাঠকের ভালো লাগবে। কাহিনী নিখুঁতভাবে এগিয়ে চলেছে। এ যেন আপনার নিজের কথা।


*এছাড়াও এই লেখিকার আরো বই সংগ্রহ করিতে পারেন-
> বাস্তবের আড়ালে

লেখিকার কথা-
লেখাপড়া করে চাকুরিক্ষেত্রে বড় পোস্টে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেও জীবন আমাদের অসম্পূর্ণ মনে হয়, কঠিন হয়ে যায় দু’পা ফেলা যদি চলার পথে ভালবাসার সঙ্গী না পাই। তাই আমরা প্রণয়ের সম্পর্কে বাঁধা পড়ি। বিয়ে করে স্থাপন করি স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক। ছোটবেলায় জ্ঞান হওয়ার পর থেকেই মানুষ এই সত্যটাকে মনের মধ্যে গেঁথে বড় হয় যে মা-বাবা, ভাইবোন এবং আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে তাদের আমৃত্যু রক্তের সম্পর্ক। কোন রাগ-বিদ্বেষ, ভুল বোঝাবুঝি সম্পর্ককে মেরে ফেলতে পারে না। কোন অবস্থাতেই মা-বাবা, ভাইবোন, সন্তান-সন্ততিকে তারা নতুন লোক দিয়ে প্রতিস্থাপিত করতে পারে না। কিন্তু স্বামী-স্ত্রীর সম্পর্ক তেমন নয়। স্বামী-স্ত্রীর মাঝখানে বোঝাপড়া এবং বিশ্বাস ছাড়াও শারীরিক সম্পর্কের উল্লেখযোগ্য অবস্থান থাকে। কোন উপাদানের মৌলিকতা নষ্ট হলে অথবা একজনকে হারালে অনেকেই শুরু করে দেয় নতুন সঙ্গীর সন্ধান। শরণাপন্ন হয় বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়ার যেমন শাদি ডট কম, ভারত ম্যাট্রিমোনি, জীবনসাথী ইত্যাদি। সুতরাং শাদি ডট কম, ভারত ম্যাট্রিমোনি বা জীবনসাথী শুধুমাত্র অল্পবয়সি যুবক যুবতীর জন্যই নয় উপরন্তু বয়ঃপ্রাপ্ত সকলের জন্য। সেসব জায়গাতে নাম নথিভুক্ত করার জন্য উপযুক্ত ব্যক্তিগত প্রমাণপত্রের প্রয়োজন হয় না।
উপন্যাসটিকে কাল্পনিক উপন্যাসের রূপ দিতে চেয়েছিলাম। কিন্তু হল না। জীবনের এক টুকরো হয়ে বাস্তব সীমানার ধার ঘেঁষেই থেকে গেল উপন্যাস। উপন্যাসের প্রধান পুরুষ এবং প্রধান নারী চরিত্র থেকে শুরু করে আরও অনেক চরিত্রই বাস্তব থেকে উঠে এসেছে। অনেক চরিত্রগুলির মধ্যে বেশিরভাগই আমার বন্ধুবান্ধব।

উপরোক্ত বাংলা বইটির পিডিএফ ফাইল সংগ্রহ করুন অথবা অনলাইনে পড়ুন
 উপরোক্ত পিডিএফটি পড়ার পরে যদি উপনা।সটি ভালো লাগে তবে অরিজিনাল বইটি আমাজন থেকে সংগ্রহ করতে পারবেন এখানে
**প্রিয় পাঠকগণ, আপনারা এই পোষ্ট হইতে একটি ভিন্ন ধরনের উপন্যাস- 'বাস্তবের আড়ালে - বনানী শিকদার'-এর পিডিএফ সংগ্রহ করিতে পারিবেন।

No comments:

Post a Comment