ধূসর পান্ডুলিপি- জীবনানন্দ দাশ বাংলা কাব্যগ্রন্থ পিডিএফ - বাংলা বই এর pdf ডাউনলোড-Bangla Digital Boi Pdf

Latest

Sunday, July 21, 2019

ধূসর পান্ডুলিপি- জীবনানন্দ দাশ বাংলা কাব্যগ্রন্থ পিডিএফ


ধূসর পান্ডুলিপি- জীবনানন্দ দাশ বাংলা কাব্যগ্রন্থ পিডিএফ
ডিজিটাল বইয়ের নাম- ধূসর পান্ডুলিপি
লেখক- জীবনানন্দ দাশ
বইয়ের ধরন- কাব্যগ্রন্থ
ফাইলের ধরন- পিডিএফ
এই বইতে মোট পৃষ্টা আছে- ১১৩
ডিজিটাল বইয়ের সাইজ- ৩এমবি
প্রিন্ট খুব ভালো, জলছাপ মুক্ত

'ধূসর পান্ডুলিপি' কবি জীবনানন্দ দাশের দ্বিতীয় কাব্যগ্রন্থ যেটি ১৯৩৬ খ্রিস্টাব্দে (১৩৪৩ বঙ্গাব্দ) প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল।
ভূমিকা-
ধূসর পান্ডুলিপি প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল ১৩৪৩ সালের আশ্বিনে। আজ প্রায় কুড়ি বছর পরে তার দ্বিতীয় সংস্করণ প্রকাশিত হচ্ছে প্রথম সিগনেট সংস্করণ হিসেবে। এবারে বইখানির কলেবর আগের চাইতে বর্ধিত হচ্ছে; দুঃখের বিষয়, কবি বেচে থাকতে তা হতে পারল না, তাহলে তা নিশ্চয়ই সামঞ্জস্যপূর্ণ সুষ্ঠ, সার্থকতার সঙ্গে হতে পারত।
প্রথম সংস্করণের ভূমিকায় কবি উল্লেখ করেছিলেন যে, এই গ্রন্থে গ্রথিত কবিতাগুলির সমকালীন অনেক অপ্রকাশিত কবিতা ‘ধূসরতর' হয়ে তাঁর কাছে বেঁচে রয়েছে, যদিও গ্রথিত অনেক কবিতার চেয়ে তাদের দাবি একটুও কম নয়। সেই সব ‘ধূসরতর’ কবিতা সন্ধান করতে গিয়ে দেখছি, তাদের অনেকগুলি আজ আর বেঁচে নেই; কীটদষ্ট হয়ে উদ্ধারের অতীত হয়েছে। মাত্র দু'খানি খাতা সংগ্রহ করা সম্ভবপর হয়েছে। সেই খাতা দু'টি থেকে মোট পনেরোটি কবিতা এ-সংস্করণে সংযোজিত হল। ধসর পাণ্ডুলিপি'র সুর ও সাময়িকতা যে-সব কবিতায় মোটামুটি প্রখর, সেই সব কবিতাই অগ্রাধিকার পেল। কোনো-কোনো কবিতাতে অবিশ্যি 'ধূসর পাণ্ডুলিপি'র পরেকার কাব্যপর্যায়ের চরিত্রগত স্বাতন্ত্র্যের আভাস চোখে পড়তে পারে। হয়তো এ-সব কবিতা বিবর্তনশীল কাব্যপ্রবাহের একটা অন্তর্বর্তীকালীন সন্ধিপর্বের চিহ্নযুক্ত। এই ক্রমবিবর্তনশীলতার উপর নির্ভর না-করে কবিতার বিন্যাসসাধনের বিষয়ে মোটামুটি ভাবে রচনার কালক্রম অনুসরণ করা হয়েছে।
এই অপ্রকাশিত কবিতাগুলি সংযোজনের ব্যাপারে ঈষৎ সঙ্কোচ বোধ কবতে হচ্ছে; কেননা, প্রকাশ করার পূর্বে প্রত্যেকটি কবিতাকে পরিমার্জিত করার অভ্যাস কবির ছিল, যাতে করে 'প্রথম লিখবার সময় যেমন ছিল তার চেয়ে বেশি স্পষ্টভাবে—চারদিককার প্রতিবেশচেতনা নিয়ে শুদ্ধ প্রবতর্কের আবির্ভাবে, কবিতাটি আরো সত্য হয়ে উঠতে' পারে: 'পুনরায় ভাবপ্রতিভার আশ্রয়ে।' সে-রকম পরিমার্জনা করা এখন আর সম্ভবপর নয়। তাই, সংযোজিত কবিতাগুচ্ছ যে স্রষ্টার প্রখর অভিভাবকতা লাভের সৌভাগ্য থেকে একেবারেই বঞ্চিত, সহুদয় পাঠককে এই কথাটি স্মরণে রাখতে অনুরোধ করি।- অশোকানন্দ দাশ

যে ২০টি কবিতা ধূসর পান্ডুলিপি কাব্যগ্রন্থে আছে-

নির্জন সাক্ষর (তুমি তা জান না কিছ, না জানিলে)
মাঠের গল্প
মেঠো চাঁদ (মেঠো চাঁদ রয়েছে তাকায়ে)
পেঁচা (প্রথম ফসল গেছে ঘরে)
পঁচিশ বছর পরে (শেষবার তার সাথে যখন হয়েছে দেখা মাঠের উপরে) কার্তিক মাঠের চাঁদ (জেগে ওঠে হদয়ে আবেগ)
সহজ (আমার এ-গান)
কয়েকটি লাইন (কেউ যাহা জানে নাই—কোনো এক বাণী)
অনেক আকাশ (গানের সুরের মত বিকালের দিকের বাতাস)
পরস্পর (মনে প'ড়ে গেল এক রুপকথা ঢের আগেকার)
বোধ (আলো-অন্ধকারে যাই—মাথার ভিতরে)
অবসরের গান (শুয়েছে ভোরের রোদ ধানের উপরে মাথা পেতে)
ক্যাম্পে (এখানে বনের কাছে ক্যাম্প আমি ফেলিয়াছি)
জীবন (চারিদিকে বেজে ওঠে অন্ধকার সমুদ্রের স্বর)
১৩৩৩ (তোমার শরীর)
প্রেম (আমরা ঘুমায়ে থাকি পথিবীর গহ্বরের মত)
পিপাসার গান (কোনো এক অন্ধকারে আমি)
পাখিরা (ঘুমে চোখ চায় না জড়াতে) শকুন (মাঠ থেকে মাঠে-মাঠে—সমস্ত দুপর ভ'রে এশিয়ার আকাশে-আকাশে)
মত্যুর আগে (আমরা হেঁটেছি যারা নির্জন খড়ের মাঠে পউষ সন্ধ্যায়)
স্বপ্নের হাতে (পথিবীর বাধা—এই দেহের ব্যাঘাতে)


ধূসর পান্ডুলিপি- অপ্রকাশিত কবিতা

এই নিদ্রা (আমার জীবনে কোনো ঘুম নাই)
পাখি (ঘুমায়ে রয়েছ তুমি ক্লান্ত হয়ে, তাই)
অঘ্রাণ (আমি এই অঘ্রাণেরে ভালোবাসি বিকেলের এই রংঙের শুন্যতা)
শীত শেষ (আজ রাতে শেষ হয়ে গেল শীত—তারপর কে যে এল মাঠে-মাঠে)
এই সব (বার-বার সেই সব কোলাহল সমারোহ রীতি রক্ত, ক্লান্তি লাগে যেন)
তাই শান্তি (রাত আরো বাড়িতেছে—এক সারি রাজহাঁস চুপে-চুপে চ'লে যায় তাই)
পায়রারা (আমাদের অভিজ্ঞতা নষ্ট হয় অন্ধকারে—তারপর পাণ্ডুলিপি গড়ি)
এই শান্তি (এইখানে একদিন তুমি এসে বসেছিলে—তারপর কতদিন আমি)
বুনোহাঁস (বেগুনি বনের পারে ঝাউ বট হিজেলের ডালপালা চুপে-চুপে নেড়ে)
বৈতরণী (কি যেন কখন আমি মত্যুর কবর থেকে উঠে আসিলাম)
নদীরা (বইচির ঝোপ শুধু শাঁইবাবলার ঝাড়—আর জাম হিজলের বন)
মেয়ে (আমার এ ছোট মেয়ে—সব শেষ মেয়ে এই)
নদী (রাইসর্ষের ক্ষেত সকালে উজ্জল হল—দুপবে বিবর্ণ হয়ে গেল)
পৃথিবীতে থেকে তোমার সৌন্দর্য চোখে (তোমার সৌন্দর্য চোখে নিয়ে আমি চলে যাব পথিবী থেকে)
একরাশ পথিবীরে (তখন অনেক দিন হয়ে গেছে—চ'লে গেছি পথিবী থেকে)
তোমারে দেখেছি, তাই (কেন ব্যথা পাবে তুমি? কোনোদিন বেদনা কি দিয়েছি হৃদয়ে)


ধূসর পান্ডুলিপি- জীবনানন্দ দাশ

উপরোক্ত বাংলা বইটির পিডিএফ ফাইল সংগ্রহ করুন অথবা অনলাইনে পড়ুন
*পিডিএফটি পড়ে যদি বইটি ভালো লাগলে তাহলে, বইটির হার্ড কপি সংগ্রহ করবেন এখানে
প্রিয় পাঠকগণ, আপনারা এই পোষ্ট হইতে জীবনানন্দ দাশের কাব্যগ্রন্থ- 'ধূসর পান্ডুলিপি'-এর পিডিএফ সংগ্রহ করিতে পারিবেন।

No comments:

Post a Comment